অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ডের তথ্য সংশোধন প্রক্রিয়া

আইডি কার্ডের তথ্য সংশোধন কি এবং অনলাইনের মাধ্যমে কিভাবে জাতীয় পরিচয় পত্র সংশোধন করতে হবে তার সম্পর্কে বিস্তারিত জানব।

অনেক সময় আমাদের জাতীয় পরিচয় পত্র বা ন্যাশনাল আইডি কার্ডের ভুল করে  নিজের নাম বয়স বা অন্যান্য তথ্য ভুল হয়ে থাকে,চলুন জেনে নেই এই তথ্যগুলো কিভাবে পরিবর্তন করতে হয়।

Related Post:- NID helpline number

এবং অনলাইনে জাতীয় পরিচয় পত্র সংশোধনের জন্য কি কি কাগজপত্র বা ডকুমেন্টের প্রয়োজন হবে তা নিয়েও আলোচনা থাকবে আজকের এই পোস্টটি

অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ডের তথ্য সংশোধন প্রক্রিয়া

ভোটার আইডি কার্ডের তথ্য সংশোধন

বিষয়টি ভালো করে বুঝার জন্য কয়েকটি ধাপে বিভক্ত করা হয়েছে

  • ভোটার আইডি কার্ডে নিজের নাম পরিবর্তন বা সংশোধন
  • জাতীয় পরিচয় পত্র ব্যক্তির জন্ম তারিখ পরিবর্তনবা সংশোধন
  • জন্ম নিবন্ধন ভুল থাকলে তা পরিবর্তন
  • বর্তমান ঠিকানা পরিবর্তন ও স্থায়ী ঠিকানা পরিবর্তন
  • ভোটার এলাকা পরিবর্তন বা নির্বাচনী এলাকা পরিবর্তন

অন্য পোস্টঃ- বিকাশ লাইভ চ্যাট করবেন কি ভাবে?

জাতীয় পরিচয় পত্র অনুসন্ধান

জাতীয় পরিচয় পত্র অনুসন্ধান বা আমাদের জাতীয় পরিচয় পত্রের তথ্য হালনাগাদ সঠিক আছে কিনা তার জন্য জাতীয় পরিচয় পত্র তথ্য অনুসন্ধান করার প্রয়োজন হয় কিভাবে আমরা আমাদের জাতীয় পরিচয় পত্র তথ্য অনুসন্ধান করতে পারব এবং তথ্যগুলো সঠিক কিনা ভুল থাকলে কিভাবে সংশোধন করব তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করতে চলেছে

আমাদের জাতীয় পরিচয় পত্রের তথ্য অনুসন্ধান করার জন্য নিম্নে অনেকগুলো পদ্ধতি বর্ণনা করা হলো আপনার প্রযুক্তি গুলো অনুসরন করে আপনার জাতীয় পরিচয়পত্রের বর্তমান তথ্য অনুসন্ধান বা জাতীয় পরিচয় পত্র সম্পর্কে যাবতীয় তথ্য পেয়ে যাবেন।

অনলাইনে ভোটার আইডি কার্ডের তথ্য সংশোধন প্রক্রিয়া

ভোটার আইডি কার্ডের তথ্য সংশোধনের জন্য দুইটি পদ্ধতি অবলম্বন করা যায় একটি সরাসরি নির্বাচন কমিশন অফিসে যোগাযোগ করে  অন্যটি  হল অনলাইনের মাধ্যমে।
কিন্তু আজকের জাতীয় পরিচয় পত্র সংশোধনের বিষয়টি হলো অনলাইনের মাধ্যমে কিভাবে ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন করা যায়।

অনলাইনে জাতীয় পরিচয় পত্র সংশোধনের জন্য প্রথমে আপনাকে নির্বাচন কমিশন ওয়েবসাইটে  একাউন্ট রেজিস্ট্রেশন করতে হবে যদি আগে থেকে অ্যাকাউন্ট থেকে থাকে তাহলে আপনার ইউজারনেম এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে লগইন করুন।
আর যদি কিভাবে একাউন্ট করতে হয় তা না জেনে থাকেন তাহলে আমার এই নিয়ে একটি পোস্ট আছে সেটা দেখতে পারেন।

ভোটার আইডি কার্ডে নিজের নাম পরিবর্তন বা সংশোধন

আশা করছি আপনি আপনার অ্যাকাউন্টের সঠিক ভাবে লগইন করতে পেরেছেন এখন নাম পরিবর্তন বা সংশোধন করার জন্য আপনাকে প্রথমেই আপনার প্রোফাইল অপশনে যেতে হবে ।
যেহেতু আপনি আপনার নাম পরিবর্তন করতে যাচ্ছেন, সেতু ব্যক্তিগত তথ্য অপশনে ক্লিক করবেন

তারপর আপনার সামনে  উপরের  ছবির মত একটি এডিট বাটন দেখতে পাবেন বাটনে ক্লিক করার পর  ব্যক্তিগত তথ্য পরিবর্তন করার অপশন দেখতে পাবেন  এখানে আপনার প্রয়োজন অনুযায়ী তথ্য পরিবর্তন বা সংশোধন করতে পারবেন
তথ্য সংশোধনের জন্য আপনি যে তথ্যটি সংশোধন করতে চান সেই তথ্যটি  ঘরে টিক চিহ্ন ঘর থাকবে সেখানে ক্লিক করলে ওই ঘরে নতুন করে লেখার সুযোগ করে দেবে এবং আপনি সেই ঘরে পরিবর্তন করে যেটি লিখতে চান তা লিখুন।

প্রয়োজনীয় পরিবর্তন বা সংশোধন হয়ে গেলে ভালোভাবে আপনার কথাগুলো কে যাচাই-বাছাই করে পরবর্তী ধাপে অগ্রসর হতে হবে এবং নির্ধারিত ফি প্রদান করে প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট সাবমিট করতে হবে নিচে ভালো ভাবে দেখানো হয়েছে

আইডি কার্ডের নিজের নাম সংশোধনের জন্য প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট

  • PSC/JSC/SSC এর র্সাটিফিকেট।
  • অনলাইন জন্ম সনদ।
  • PSC/JSC/SSC এর র্সাটিফিকেট না থাকলে:
  • ড্রাইভিং লাইসেন্স/পাসর্পোট।
  • নিকাহ্ নামা (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)
  • অনলাইন জন্ম সনদ ইংরেজি ও বাংলা দুইটা।
  • হলফনামা।
  • উপজেলা/ থানা র্নিবাচন অফিসার র্কতৃক চাহিত তথ্য।

জাতীয় পরিচয় পত্রে ব্যক্তির জন্ম তারিখ পরিবর্তন বা সংশোধন

আইডি কার্ডের জন্ম তারিখ পরিবর্তনের ক্ষেত্রে ঠিক আগের মতোই ব্যক্তির ব্যক্তিগত তথ্যে ক্লিক করতে হবে এবং সেখান থেকে এডিট বাটনে ক্লিক করতে হবে
সেখান থেকে জন্ম তারিখ অপশনটিতে  টিক চিহ্ন দিয়ে প্রয়োজনীয় সংশোধন করে সামনের দিকে অগ্রসর হতে হবে

জাতীয় পরিচয় পত্রে আপনার জন্ম তারিখ ভুল থাকলে তা পরিবর্তন করার জন্য নিচের কাগজ পত্র গুলো জমা দিতে হবে
  • PSC/JSC/SSC এর র্সাটিফিকেট।
  • অনলাইন জন্ম সনদ।
  • PSC/JSC/SSC এর র্সাটিফিকেট না থাকলে:
  • ড্রাইভিং লাইসেন্স/পাসর্পোট।
  • নিকাহ্ নামা।
  • অনলাইন জন্ম সনদ ইংরেজি ও বাংলা দুইটা।
  • হলফনামা।
  • বয়স সংশোধন ৫(পাচঁ) বছরের বেশি হলে সিভিল র্সাজন র্কতৃক রেডিওলজিক্যাল প্রত্যয়নপত্র।
  • উপজেলা / থানা র্নিবাচন অফিসার র্কতৃক চাহিত তথ্য।

আইডি কার্ডের মাতা পিতার নাম পরিবর্তন

আচ্ছা জাতীয় পরিচয় পত্রের পিতা-মাতার নামে ভূল থাকলে তা অনলাইনে আবেদন করার মাধ্যমে পিতা মাতার নাম সংশোধন করা সম্ভব, আবেদন করার পদ্ধতি নিচে ব্যাখ্যা করা হলো-

পিতা মাতার নাম পরিবর্তন করার জন্য সেটি ব্যক্তিগত তথ্যের মধ্যে পরিবর্তন করতে হবে, পিতার নাম ভুল থাকলে পিতার নামের ঘরে এবং মাতার নাম ভুল থাকলে মাতার নামের ঘরে টিক চিহ্ন দিয়ে প্রয়োজন অনুযায়ী পরিবর্তন করতে হবে।

আইডি কার্ডের মাতা পিতার নাম পরিবর্তন করতে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

  • পিতা-মাতার এনআইডি র্কাডের কপি।
  • পিতা-মাতা মৃত থাকলে অনলাইন মৃত্যু সনদ।
  • ড্রাইভিং লাইসেন্স/পাসর্পোট।
  • পারিবারিক সনদ এর কপি।
  • সকল ভাই-বোনের এনআইডি কপি।
  • অনলাইন জন্ম সনদের কপি।
  • PSC/JSC/SSC এর র্সাটিফিকেট।
  • উপজেলা /থানা র্নিবাচন অফিসার র্কতৃক চাহিত তথ্য।

অনলাইনে জাতীয় পরিচয় পত্রের আরো কি কি তথ্য পরিবর্তন করা সম্ভব? 


অনলাইনের মাধ্যমে জাতীয় পরিচয়পত্রের বেশ কিছু তথ্য পরিবর্তন করতে পারবেন তার মধ্যে অন্যতম হলো
  1. জাতীয় পরিচয় পত্রের জন্ম নিবন্ধন নাম্বার পরিবর্তন
  2. আইডি কার্ডের ভোটার ঠিকানা বা আপনার ঠিকানা পরিবর্তন করতে পারবেন
  3. জাতীয় পরিচয় পত্রের রক্তের গ্রুপ ভুল থাকলে তা সংশোধন বা পরিবর্তন করতে পারবেন
  4. আইডি কার্ডের শিক্ষাগত যোগ্যতা পরিবর্তন
  5.  জাতীয় পরিচয় পত্রে ব্যক্তির পেশা পরিবর্তন
  6.  জাতীয় পরিচয় পত্রের স্বামী অথবা স্ত্রীর নাম পরিবর্তন

জাতীয় পরিচয় পত্রের জন্ম নিবন্ধন নাম্বার পরিবর্তন

অনলাইনের মাধ্যমে আপনার জাতীয় পরিচয় পত্রের জন্ম নিবন্ধন নাম্বার পরিবর্তন করতে চাইলে আপনাকে অবশ্যই আপনার  চেয়ারম্যানের অথবা সিটি কর্পোরেশনের কাছ থেকে নাগরিক সনদপত্র হবে এবং আপনার এইচএসসি অথবা এসএসসি বা সমমানের সার্টিফিকেট অথবা রেজিস্টেশন পেপার লাগবে।

লিংকঃ

জাতীয় পরিচয় পত্র অথবা ন্যাশনাল আইডি কার্ডের তথ্য পরিবর্তনের সকল দাবি প্রায় একই রকম। উপরেতে এখনো নিয়ে মন্ত্রী আপনি শুধু আপনার জন্ম সনদের নাম্বারের উপরে ক্লিক করে  পরিবর্তন করে পরবর্তী ধাপে অগ্রসর হবেন।

জাতীয় পরিচয় পত্রের জন্ম নিবন্ধন নাম্বার পরিবর্তন করতে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

  • PSC/JSC/SSC এর র্সাটিফিকেট।
  • অনলাইন জন্ম সনদ।
  • PSC/JSC/SSC এর র্সাটিফিকেট না থাকলে:
  • ড্রাইভিং লাইসেন্স/পাসর্পোট।
  • নিকাহ্ নামা (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)
  • অনলাইন জন্ম সনদ ইংরেজি ও বাংলা দুইটা।
  • হলফনামা।
  • উপজেলা/ থানা র্নিবাচন অফিসার র্কতৃক চাহিত তথ্য।

আইডি কার্ডের ভোটার ঠিকানা বা আপনার ঠিকানা পরিবর্তন

বাংলাদেশী একজন নাগরিক যদি তার ভোটার এলাকা অথবা স্থায়ী ঠিকানা অথবা ব্যক্তির বর্তমান ঠিকানা পরিবর্তন করতে চায় তাহলে তাকে অবশ্যই স্থানীয় নির্বাচন কমিশন অফিসে যেতে হবে এবং সেখান থেকে 13 নম্বর ফরম ফিলাপ করে জমা দিতে হবে জাতীয় পরিচয় পত্রের ভোটার এলাকা পরিবর্তন অনলাইনে করা যায়না যদিও অনলাইনে পরিবর্তনের অপশন আছে, কিন্তু তা পরিবর্তন হয় কিনা সেটা আমার জানা নেই।

আপনি যদি আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র ভোটার এলাকা পরিবর্তন করতে চান তাহলে অবশ্যই নিচে উল্লেখিত  গুলোর ডকুমেন্টগুলো প্রয়োজন হবে।

জাতীয় পরিচয় পত্রের ভোটার এলাকা পরিবর্তন করতে কি কি প্রয়োজন

  • এনআইডি র্কাডের কপি।
  • যে এলাকায় স্থানান্তরিত হবেন সে এলাকার চেয়ারম্যান র্কতৃক নাগরিক সনদ।
  • যে এলাকায় স্থানান্তরিত হবেন সে এলাকায় নিজের নামে অথবা পিতার নামে মাঠ র্পচা/বিদ্যু বিল/জমির দলিলের কপি।
  • বিবাহিত মহিলাদের ক্ষেত্রে স্বামীর এনআইডি এর কপি, নিকাহ নামা এবং স্বামীর নিজের নামের অথবা তাঁর পিতার নামের র্পচা/বিদ্যু বিল/জমির দলিলের কপি।
  • তালাকপ্রাপ্ত/স্বামী মৃত হলে (মৃত্যু সনদ/তালাকনামা সংযুক্তি সহ) নিজ নামে/পিতার নামে মাঠ র্পচা/বিদ্যু বিল/জমির দলিলের কপি।
  • উপজেলা/ থানা র্নিবাচন অফিসার র্কতৃক চাহিত তথ্য।

স্বামী/স্ত্রীর নামে সংশোধন এবং সংযুক্তির ক্ষেত্রেঃ-

  • নতুন বিবাহিতের ক্ষেত্রেঃ-
  •  স্বামীর/স্ত্রীর এনআইডি।
  • নিকাহ নামা।
  • তালাক প্রাপ্ত হলে:
  • তালাকনামা।
  •  নিকাহনামা নতুন এবং পুরাতন।
  • নতুন স্বামী/স্ত্রীর এনআইডি।
  • উপজেলা/ থানা র্নিবাচন অফিসার র্কতৃক চাহিত তথ্য।


 রক্তের গ্রূপ সংযুক্তির ক্ষেত্রেঃ-

যদি আপনার জাতীয় পরিচয় পত্রে রক্তের গ্রুপ উল্লেখ না থাকলে বা ভুলক্রমে অন্য কোনো রক্তের গ্রুপ উঠে যায়  তাহলে তা সংশোধন করার জন্য নিচে ডকুমেন্টগুলো প্রয়োজন

  1. ব্লাড টেস্টের মেডিক্যাল র্সাটিফিকেট।
রিপোর্টে আপনার রক্তের গ্রুপ কি সেটা স্পষ্ট উল্লেখ থাকতে হবে। সাধারনত যে কোন মেডিকেল বা ক্লিনিকেই এই ধরনের রক্তের গ্রুপিং রিপোর্ট দিয়ে থাকে।

মোবাইল নং সংযুক্তির ক্ষেত্রেঃ-

সংশ্লিষ্ট মোবাইল অপারেটরের কাস্টমার কেয়ার র্কতৃক প্রত্যয়ন ( যে নাম্বারটি ঐ ব্যক্তির এনআইডি দিয়ে কেনা হয়েছে।

 ঠিকানা সংশোধনের ক্ষেত্রেঃ

* অনলাইন জন্ম সনদ।
* নাগরিক সনদ।
* বিদ্যু বিলের কপি।



Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url