অনলাইনে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট কাটার নিয়ম | অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটার নিয়ম 2022

আজকে আমরা জানবো কিভাবে ঘরে বসে অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটা যায়। অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটার উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পড়তে থাকুন আজকের লেখাটি।

অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটার নিয়ম 2022
অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটার নিয়ম 2022

রোজা রাখার জন্য প্রস্তুত আপনি !!! রমজানের সময় সূচি ২০২২ | রমজান ক্যালেন্ডার ২০২২

রোজা রাখার নিয়ত ও ইফতারের দোয়া আরবি এবং বাংলা উচ্চারণ

ট্রেনের ভ্রমণ কে সবচেয়ে সহজ এবং নিরাপদ ভ্রমণ বলা হয়ে থাকে,  কিন্তু এই সবচেয়ে সহজ এবং নিরাপদ যাতায়াতের মাধ্যমের সবচেয়ে বিরক্তিকর এবং কষ্টদায়ক বিষয়টি হচ্ছে ট্রেনের টিকিট কেটে সংগ্রহ করা।

অনলাইনে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট কাটার নিয়ম | অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটার নিয়ম 2022

ট্রেনের টিকিট কাটার জন্য লাইন ধরে ঘণ্টার পর ঘণ্টা দাঁড়িয়ে থেকে ট্রেনের টিকেট কাটতে হয় যদি না আপনি জানেন কিভাবে অনলাইনের মাধ্যমে খুব সহজে ঘরে বসে মোবাইলের মাধ্যমে ট্রেনের টিকেট কাটার নিয়ম সম্পর্কে।

জেনে নিন >> জাতীয় পরিচয়পত্র তথ্য অনুসন্ধান | অনলাইনে জাতীয় পরিচয় পত্র যাচাই পদ্ধতি

আজকে আপনারা জানতে পারবেন কোনো রকম স্টেশনের লাইনে ঘন্টার পর ঘন্টা না দাড়িয়ে থেকে খুব সহজেই আমাদের নির্দিষ্ট গন্তব্যের ট্রেনের টিকিট অনলাইনে কাটার উপায়।

দুইভাবে আমরা অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটতে পারি। আজকে আমরা অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কেনার একটি সহজ পদ্ধতি নিয়ে আলোচনা করবো। সেটি হলো ঘরে বসে অনলাইনে ট্রেনের টিকিট মোবাইলে অ্যাপে। এবং আরো জানতে পারবেন ওয়েবসাইটের মাধ্যমে কিভাবে অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটতে হয়।

অনলাইনে ট্রেনের টিকিট | অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কিনতে যা যা লাগবে

যেহেতু আমরা অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটবো তাই আমাদের যেকোন একটি ডিজিটাল ডিভাইস লাগবে যেমন মোবাইল ফোনে মোবাইলে ট্রেনের টিকেট কাটতে মোবাইল ফোন ব্যবহার করতে পারেন অথবা আপনি চাইলে কম্পিউটার  ল্যাপটপ দিয়ে অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটতে পারবেন।

  • মোবাইল ফোন
  • যে কোনো ব্রাউজার যেমন গুগল ক্রোম,মজিলা ফায়ারফক্স,সাফারি অথবা ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার
  • জাতীয় পরিচয় পত্র
  • বিকাশ একাউন্ট
  • রকেট একাউন্ট
অনলাইনে টাকা পেমেন্ট করার জন্য আমাদের বিকাশ অথবা রকেট মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্ট এর প্রয়োজন আপনার যদি বিকাশ একাউন্ট অথবা রকেট একাউন্ট না থেকে থাকে বা মোবাইল ব্যাংকিং সম্পর্কে কোনো তথ্য প্রয়োজন হয় তাহলে আমাদের পোস্ট গুলো পড়তে পারেন।

অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কেনার নিয়ম | ট্রেনের অগ্রিম টিকেট

যেকোনো ব্রাউজার থেকে সহজেই অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটা যায়। তার জন্য এই পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পডলে ঘরে বসে অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটা দুই মিনিটের ব্যাপার মাত্র।

আপনাদের সুবিধার জন্য অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটার উপায় সমূহ কয়েকটি ধাপে বিভক্ত করা হয়েছে ট্রেনের টিকেট অনলাইনের মাধ্যমে কাটার নিয়মগুলো নিচে ধাপে ধাপে বর্ণনা করা হলো--

ধাপ-১ঃ

অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটতে সর্বপ্রথম গুগল প্লে-স্টোর থেকে rail seba এই অ্যাপটি ডাউনলোড করতে হবে। আপনাদর প্রয়োজনে নিচে লিংক দেওয়া থাকবে।

ধাপ-২ঃ

অ্যাপের মাধ্যমে অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটতে হলে অবশ্যই প্রথমে রেজিষ্ট্রেশন করে নিতে হবে। রেজিষ্ট্রেশন করতে যা যা লাগবেঃ

১।নিজের এনআইডি নম্বর

২। সচল মোবাইল নম্বর

৩। মেইল 

৪। এছাডাও অল্প কিছু তথ্য দেওয়া লাগতে পারে যেমন- নাম, জন্ম তারিখ,ঠিকানা ইত্যাদি। 


রেজিষ্ট্রেশন সম্পন্ন হয়ে গেলে অ্যাপের মাধ্যমে  সহজেই অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটা যাবে খুব সহজেই।

ধাপ-৩ঃ

Rail seba অ্যাপে প্রবেশের পর অনেকগুলো আইকন পাওয়া যায়। তাদের মধ্যে purchase ticketticket অপশনে ক্লিক করে সহজেই অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটা যাবে। এক্ষেত্রে From station এ আপনি কোথা হতে যাত্রা শুরু করতে চান তা সার্চ করে কিংবা টাইপ করে লিখতে হবে। To station অপশনে আপনি কোথায় যেতে চান সেটা লিখবেন এবং Journey Date অপশন থেকে যাত্রার তারিখ দিলেই অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটার ৫০% সম্পন্ন হয়ে যাবে।


ধাপ-৪ঃ

এই ধাপটি অনুসরন করলে আর প্রশ্ন করতে হবে না যে কিভাবে অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটবো?.

আচ্ছা, ধাপ -৩ সম্পন্ন হলে আপনার কাছে আপনার চাহিদা অনুযায়ী অনলাইনে ট্রেনের লিস্ট চলে আসবে।

আরও পডুনঃ স্ট্যান্ডিং টিকিট,পিকচার


সেখান থেকে নির্দিষ্ট ট্রেন সিলেক্ট করে আসন বিন্যাস সম্পন্ন করতে হবে। সবচেয়ে মজার বিষয় হলো এখানে আপনি নিজের ইচ্ছামতো সিট সিলেক্ট করতে পারবেন।চাইলে যেকোনে সিট নিতে পারবেন। 

আপনার বাজেট অনুযায়ী অনলাইন টিকিট সংগ্রহ করতে পারবেন যেকোনো মোবাইল ব্যাংকিং ব্যবহার করে। যেমন- বিকাশ রকেট ইত্যাদি। 

বিকাশ পিন লক হলে করনীয় সম্পর্কে জেনে রাখুন।

 

অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটতে পেমেন্ট করার পর সর্বোচ্চ ৩০ মিনিটের মধ্যে(সাধারনত ৫-১০ মিনিট লাগে) আপনার হিস্টোরি তে টিকিট অ্যাড হয়ে যাবে। তারপর সেটি কাউন্টারে প্রিন্ট করে কিংবা স্কিনসট দেখালেও টিকিট দিয়ে দিবে। 

ব্যাস অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটা সম্পন্ন হয়ে গেলো। তবে গুরুত্বপূর্ণ কিছু বিষয় শেয়ার না করলেই নয়,তা হলোঃ

১.ট্রেন ছাড়ার ৩০ মিনিট পূর্ব পর্যন্ত কাউন্টার থেকে আপনার অনলাইনে ট্রেনের টিকিট টি সংগ্রহ করতে পারবেন।যদি সেই সময়ে না আসতে পারেন তবে আপনার অ্যপ হিস্টোরিতে থাকা অনলাইন টিকিট প্রিন্ট করে যাত্রা করতে পারবেন।

২. একজন ব্যাবহারকারি একদিনে সর্বোচ্চ ৪ টি অনলাইন ট্রেনের টিকেট কাটতে পারবেন।

৩. আপনার অনলাইন ট্রেনের টিকিটে থাকা পিন নম্বর শেয়ার করবেন না

আশাকরি অ্যাপ দিয়ে কিভাবে অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটা যায় সে বিষয়টি আপনারা বুঝতে পেরেছেন চলুন তাহলে আমরা এখন জেনে নেই কিভাবে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে অনলাইনে ট্রেনের টিকিট ট কাটতে হয়

অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কেনার নিয়ম | ট্রেনের অগ্রিম টিকেট

আজকাল অনেকেই দূরপাল্লার কোন ভ্রমণের জন্য ট্রেনের ভবন কে বেছে নেয় সে জন্য প্রয়োজন হয় ট্রেনের টিকিট কাটা কিন্তু স্টেশনে বা কাউন্টারে গিয়ে ট্রেনের টিকেট সংগ্রহ করা সবচেয়ে কষ্টকর এবং দুঃসাধ্য কাজ অনেক সময় টিকিট কিনে অশ্লীলভাবে দাড়িয়ে যায় ভ্রমণ করতে হয় সেজন্য আগে থেকেই অগ্রিম টিকিট কাটার ব্যবস্থা রয়েছে অনলাইনের মাধ্যমে আমরা আজকে জানবো কিভাবে অনলাইনে অগ্রিম ট্রেনের টিকেট কেটে রাখা যায়।


অনলাইনে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট কাটার নিয়ম ২০২২ | অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটার নিয়ম 2022

আমাদের দেশটি প্রযুক্তির দিকে অগ্রসর হচ্ছে তারে একটি নির্দশন হচ্ছে ট্রেনের টিকেট কাটার ক্ষেত্রে অনলাইন প্লাটফর্ম ব্যবহার করা বা অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটার ব্যবস্থা। অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটার জন্য বাংলাদেশের রেলওয়ে ওয়েবসাইট এবং অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ লঞ্চ করেছে। অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটার অফিশিয়াল ওয়েবসাইট হল- https://www.esheba.cnsbd.com

এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে খুব সহজেই ঝামেলা ছাড়া অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটা যায়। আপনি চাইলে ওয়েবসাইট ছাড়াও বাংলাদেশ রেলওয়ে মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমেও অনলাইনে ট্রেনের টিকেট করতে পারবেন। আজকে আমরা দুটি পদ্ধতি অর্থাৎ অনলাইনে টিকিট কাটার মাধ্যম হিসেবে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে কিভাবে ট্রেনের টিকেট কাটতে হয় এবং মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে কিভাবে ট্রেনের টিকেট কাটার নিয়ম আলোচনা করব-

  • ওয়েবসাইটের মাধ্যমে অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কেনার নিয়ম
  • অ্যাপের মাধ্যমে মোবাইলে ট্রেনের টিকিট কাটার নিয়ম

অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কেনার নিয়ম | অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটার নিয়ম ২০২২

অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটার জন্য আমাদের মাত্র ৩টি ধাপ অনুসরণ করতে হবে। মাত্র এ কয়টি ধাপ অনুসরন করার মাধ্যমেই আমরা অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটতে সক্ষম হবো। অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটা শুরু করার আগে একটি প্রশ্নের জবাব দেওয়া উচিত সেটি হচ্ছে অনেকেই জানতে চাই

প্রশ্নঃ- অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটার সময়

উত্তরঃ-যেহেতু এটি অনলাইন প্লাটফর্ম তাই অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটার সময় নিয়ে কোন সীমানা নেই দিনরাত 24 ঘণ্টা সপ্তাহের ৭দিন সবসময় আপনি অনলাইনে টিকেট কাটতে পারবেন সেটি অগ্রিম অথবা রেগুলার যাই হোক।

অনলাইনে ট্রেনের টিকিট | অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কিনতে যা যা লাগবে

যেহেতু আমরা অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটবো তাই আমাদের যেকোন একটি ডিজিটাল ডিভাইস লাগবে যেমন মোবাইল ফোনে মোবাইলে ট্রেনের টিকেট কাটতে মোবাইল ফোন ব্যবহার করতে পারেন অথবা আপনি চাইলে কম্পিউটার  ল্যাপটপ দিয়ে অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটতে পারবেন।

  • মোবাইল ফোন
  • যে কোনো ব্রাউজার যেমন গুগল ক্রোম,মজিলা ফায়ারফক্স,সাফারি অথবা ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার
  • জাতীয় পরিচয় পত্র
  • বিকাশ একাউন্ট
  • রকেট একাউন্ট
অনলাইনে টাকা পেমেন্ট করার জন্য আমাদের বিকাশ অথবা রকেট মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্ট এর প্রয়োজন আপনার যদি বিকাশ একাউন্ট অথবা রকেট একাউন্ট না থেকে থাকে বা মোবাইল ব্যাংকিং সম্পর্কে কোনো তথ্য প্রয়োজন হয় তাহলে আমাদের পোস্ট গুলো পড়তে পারেন।

ধাপ ১- টিকিট কাটার জন্য একাউন্ট খোলা | অনলাইনে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট কাটার নিয়ম

আমরা প্রথমে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে অনলাইনে টিকেট কাটার নিয়ম সম্পর্কে জানব এবং তারপরে অ্যাপ দিয়ে কিভাবে অনলাইনে টিকিট কাটতে হয় সে সম্পর্কে কিছু আলোচনা করব।

প্রথমেই আমাদেরকে বাংলাদেশ রেলওয়ে টিকেট কাটার অফিশিয়াল ওয়েবসাইট https://www.esheba.cnsbd.com একটি একাউন্ট খুলতে হবে। একাউন্ট খোলার জন্য সাইটে গিয়ে রেজিস্টার এ ক্লিক করতে হবে এবং নিচে দেখানো ধাপগুল অনুসরণ করার মাধ্যমে অ্যাকাউন্ট খুলে নিতে পারেন।


১. একাউন্ট খোলার জন্য সাইটে গিয়ে রেজিস্টার এ ক্লিক করতে হবে এবং নিচে দেখানো ধাপগুল অনুসরণ করার মাধ্যমে অ্যাকাউন্ট খুলে নিতে পারেন।


অনলাইনে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট কাটার নিয়ম
অনলাইনে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট কাটার নিয়ম | ঘরে বসে ট্রেনের টিকিট কিনুন




২. এর পর নিচে প্রদর্শিত ছবিটির নেয় ফোনটিকে আপনার তথ্য দিয়ে সঠিকভাবে পূরণ করে সাইন আপ বাটনে ক্লিক করে সামনের দিকে অগ্রসর হতে হবে-


অনলাইনে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট কাটার নিয়ম ও একাউন্ট তৈরি
অনলাইনে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট কাটার নিয়ম ও একাউন্ট তৈরি




৩. এখন আপনার মোবাইলে একটি এসএমএস ভেরিফিকেশন কোড বা ওটিপি আসবে অর্থাৎ আপনি আগের ফরম পূরণের যে নাম্বারটা দিয়েছেন সেই নাম্বারে একটা এসএমএস আসবে এসএমএসে থাকা করতে এখানে দিয়ে ভেরিফাই করতে হবে।

আশা করছি উপরের ছোট ছোট তিনটি ধাপ অনুসরণ করার মাধ্যমে আপনি অনলাইনে টিকিট কাটার জন্য অ্যাকাউন্ট খুলতে সক্ষম হয়েছেন। এখন আপনি যেকোনো সময় অনলাইন থেকে আপনার টিকেট কাটতে পারবেন অনেকেই প্রশ্ন করে অনলাইনে টিকিট কাটার সময় কখন প্রকৃতপক্ষে অনলাইনে টিকিট কাটার কোন নির্দিষ্ট সময় নেই যেকোনো সময় আপনি টিকিট কাটতে পারবেন।

আমরা বাংলাদেশ রেলওয়ে ওয়েবসাইটে একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে পেরেছি কিন্তু আমাদের এখন আমাদের একাউন্টটি আপডেট করার প্রয়োজন একাউন্টে এড করতে যে সকল তথ্য প্রয়োজন হবে-

  • জাতীয় পরিচয়পত্র বা ভোটার আইডি কার্ড
  • জন্ম নিবন্ধন

 উপরের দুটি ডকুমেন্টে এর যেকোনো একটি হল এই হবে

ধাপ ২- একাউন্ট আপডেট | বাংলাদেশ রেলওয়ে টিকিট

যে কোন ব্রাউজার থেকে বাংলাদেশ রেলওয়ে e-ticket ওয়েবসাইট প্রবেশ করার পর আপনার একাউন্টে লগইন করতে হবে যা ইতিমধ্যে আমরা উপরে তৈরি করেছি এবং একাউন্টে লগইন করার পর ইউজার প্রোফাইলে গিয়ে আপনার ব্যক্তিগত তথ্য দিয়ে অ্যাকাউন্টে আপডেড করতে হবে।


অনলাইনে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট কাটার নিয়ম ও একাউন্ট আপডেট
অনলাইনে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট কাটার নিয়ম ও একাউন্ট আপডেট



উল্লেখ্য যে ফরমটি আপডেট করার সময় যাবতীয় তথ্য আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র অথবা জন্ম নিবন্ধন অনুসারে দিবেন অর্থাৎ জন্ম সাল এবং এলাকার ঠিকানা জাতীয় পরিচয় পত্র অনুসারে পূরণ করবেন। ফরমটি পূরণ করার ক্ষেত্রে আপনাকে আপনার এলাকার পোস্ট কোড দিতে হতে পারে আপনি যদি না জানেন আমরা এলাকার পোস্টকোড কি তাহলে এই লিংক থেকে জেনে নিতে পারেন।

ধাপ ৩- টিকিট কাটা | মোবাইলে ট্রেনের টিকিট কাটার নিয়ম

১. বাংলাদেশ রেলওয়ে ওয়েবসাইট এ অনলাইনে টিকিট কাটার জন্য আপনার অ্যাকাউন্ট তৈরি করা হয়েছে এবং অ্যাকাউন্ট আপডেট করা হয়ে গেছে যদি আপনি আমাদের দেখার নিয়ম অনুসারে করে থাকেন এখন আপনার কাজ হচ্ছে আপনার গন্তব্য অনুযায়ী ট্রেনের টিকেট কাটা।

২. অনলাইনে ট্রেনের টিকিট অনলাইনে টিকিট কাটার এই ধাপে এসে আপনাকে আপনার একাউন্টে লগইন করতে হবে এবং হোম বাটনে ক্লিক করার পর নিচের দেখানো ছবির মত একটি পেজ দেখতে পারবেন এবং সেখান থেকে আপনি আপনার গন্তব্যের রুট অর্থাৎ আপনি ট্রেনে করে যে স্থান থেকে যে স্থানে যেতে চান সেটি সিলেক্ট করবেন।

অনলাইনে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট কাটার নিয়ম | ঘরে বসে ট্রেনের টিকিট কিনুন
অনলাইনে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট কাটার নিয়ম | ঘরে বসে ট্রেনের টিকিট কিনুন




আপনার গন্তব্যের রোড সিলেট হয়ে গেলে Fing বাটনে ক্লিক করতে হবে

৩. মোবাইলে ট্রেনের টিকেট কাটার নিয়ম এর এই দ্বীপে এসে আপনি নিচে প্রদর্শিত ছবির নিয়ে একটি পেজ দেখতে পারবেন ট্রেনের অগ্রিম টিকিট কাটতে আপনার গন্তব্যে যে সকল ট্রেন এভেলেবেল আছে সেগুলোর লিস্ট তালিকা দেখতে পারবেন এবং সেখান থেকে আপনি যে ট্রেনে ভ্রমণ করতে চান সেই ট্রেনের ডিটেলস ঘটনায় ক্লিক করে Details জেনে নিতে পারেন।


অনলাইনে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট কাটার নিয়ম
মোবাইলে ট্রেনের টিকিট কাটার নিয়ম


৪. অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কেনার এই পর্যায়ে এসে আপনাকে আপনার পছন্দের ট্রেন এর ডিটেলস দেখে এবং আপনি যে সিটে যেতে চান অর্থাৎ যে চেয়ার কোচ সেটি যাচাই করার পর পারচেজ বাটনে ক্লিক করে কনফার্ম করুন


বিকাশে ট্রেনের টিকেট কাটার নিয়ম
বিকাশে ট্রেনের টিকেট কাটার নিয়ম



বাংলাদেশ রেলওয়ে টিকিট

৫. বিকাশে ট্রেনের টিকেট কাটার নিয়ম এর ঠিক এই পর্যায়ে এসে আপনি দেখতে পারবেন আপনি যে টিকিট কিনতে চাচ্ছেন তার যাবতীয় তথ্য টাকার পরিমাণ সহ একটি টিকিটের যা যা প্রয়োজন সবকিছুই এখানে পেয়ে যাবেন সবকিছু ঠিক থাকলে  BUY Ticket অপশনে ক্লিক করে পেমেন্ট অপশনে যেতে হবে।

৬. ট্রেনের অগ্রিম টিকেট বিকাশে পেমেন্ট।

আমরা অনলাইনে টিকিট কাটার একেবারে শেষ ধাপে চলে এসেছি অর্থাৎ আমরা এখন পেমেন্ট করে দিলে আমাদের টিকিট কাটা সম্পন্ন হয়ে যাবে ট্রেনের টিকিট কাটার জন্য যেসকল পেমেন্ট মেথড ব্যবহার করা যাবে সেগুলো হলোঃ



উপরে বর্ণিত পেমেন্ট মেথড এর যেকোনো একটি ব্যবহার করে আপনি অনলাইনে টিকেট পেমেন্ট করতে পারেন প্রেমের করার প্রযুক্তি খুবই সহজ যে পদ্ধতিতে পেমেন্ট করতে চান সেটি সিলেক্ট করার পর কয়েকটি ধাপ অনুসরণ করেই আপনি প্রেম করতে সক্ষম হবেন।

বিকাশ এবং রকেট মোবাইল ব্যাংকিং সম্পর্কিত কোন সমস্যা হলে বিকাশ কাস্টমার কেয়ার সেন্টারে যোগাযোগ করতে পারেন এবং রকেটের ক্ষেত্রে রকেট কাস্টমার কেয়ারে যোগাযোগ করুন।

সতর্কতাঃ

  • ওয়েবসাইটে যাবতীয় তথ্য সঠিক দিবেন কেননা এটি সরকার কর্তৃক পরিচালিত
  • ওয়েবসাইট সাইটটি ব্যবহারের সময় VPN ব্যবহার বর্জন করুন

বাংলাদেশ রেলওয়ে হেল্পলাইন

অনলাইনে টিকিট কাটার সম্পর্কিত কোনো তথ্য বা সহযোগিতার জন্য বাংলাদেশ রেলওয়ে হেল্পলাইন নাম্বারে যোগাযোগ করতে পারেন। বাংলাদেশ রেলওয়ে হেল্পলাইন নাম্বার যোগাযোগের জন্য আপনি ৩৩৩ এই নাম্বার টি ব্যবহার করতে পারেন এবং আপনার বাংলাদেশ রেলওয়ে হেল্পলাইন সম্পর্কিত যাবতীয় তথ্য পেয়ে যাবেন।

বাংলাদেশ রেলওয়ে যোগাযোগ

বাংলাদেশ রেলওয়ে হেল্পলাইন নাম্বার বা বাংলাদেশ রেলওয়ে যোগাযোগ করার জন্য কয়েকটি পদ্ধতি অবলম্বন করা যেতে পারে যেমন বাংলাদেশ রেলওয়ে হেল্পলাইন নাম্বারে যোগাযোগ এবং ওয়েবসাইট বাংলাদেশ রেলওয়ে মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে অভিযোগ করার মাধ্যমে যোগাযোগ করা যেতে পারে।


ট্রেনের টিকেট কাটা বা অনলাইনে টিকিট কাটার সম্পর্কিত যেকোনো তথ্য বা অভিযোগের জন্য বাংলাদেশ রেলওয়ে মোবাইলে ফের অভিযোগ অপশনে অভিযোগ করতে পারেন।


ট্রেনের অগ্রিম টিকেট

মোবাইলে ট্রেনের টিকিট কাটার নিয়ম

বিকাশে ট্রেনের টিকেট কাটার নিয়ম

অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটার সময়


ধন্যবাদ।

আরও পডুনঃ

১.শোবন কি?, শোভন চেয়ার কি?, ট্রেনের সিট কোনটা কেমন?

২. ট্রেনে বসে কিভাবে খাবার অর্ডার করবো

৩. অনলাইনে ট্রেনের টিকিট কাটা ছাডাই কিভাবে ইনফরমেশন নিব।

৪. কোন ট্রেনের অফ ডে কবে

৫. ট্রেন কোথায় আছে কিভাবে জানবো 

৬। ট্রেনের টিকিট ফেরত দিলে কত টাকা পাওয়া যায়.

৭. কোন ট্রেন কোন কোন স্টেশনে থামে।

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url

প্রয়োজনীয় পোস্ট